ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১১ বৈশাখ ১৪৩১, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

সিলেটে তালাবদ্ধ ঘরে মিললো যুবকের রক্তাক্ত মরদেহ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮৫২ ঘণ্টা, মার্চ ৫, ২০২৪
সিলেটে তালাবদ্ধ ঘরে মিললো যুবকের রক্তাক্ত মরদেহ

সিলেট: সিলেট নগরে তালাবদ্ধ ঘর থেকে রাফি (২৫) নামে এক যুবকের রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার (৪ মার্চ) রাত সাড়ে ১১টার দিকে শাহজালাল উপশহর ই-ব্লকের ২ নম্বর সড়কের ২৯ নম্বর বাসার দরজা ভেঙে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

 

নিহত রাফির গ্রামের বাড়ি সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার হেতিমগঞ্জে। তিনি উপশহর এলাকায় পরিবারের সঙ্গে বসবাস করতেন। ওই বাসায় রাফি ও তার মামা আবু সুফিয়ান ছিলেন। পুলিশের ধারণা, রাফিকে তার মামা খুন করে বাসার বাইরে থেকে তালাবদ্ধ করে পালিয়ে গেছেন।  

নিহতের পরিবারের লোকজনের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, সকালে পরিবারের লোকজন রাফি ও তার মামা আবু সুফিয়ানকে বাসায় রেখে বাইরে যান। ফিরে এসে বাসা তালাবদ্ধ দেখেন এবং রাফির কোনো খোঁজ পাচ্ছিলেন না। এক পর্যায়ে এসএমপির শাহপরান থানায় ঘটনাটি জানান পরিবারের লোকজন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয় কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে বাসার তালা ভেঙে একটি কক্ষে রাফির রক্তাক্ত মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে। মরদেহের পরনে একটি প্যান্ট ছিল। পাশেই টি টেবিলে একটি জিআই পাইপ ও কার্টার রাখা ছিল। এছাড়া শরীরে, ফ্লোরে ও বিছানায় রক্তের ছোপ।   

পুলিশের ধারণা, হত্যার আগে তার সঙ্গে অনেক ধস্তাধস্তি হয়েছে। হত্যায় জিআই পাইপ ও কার্টার ব্যবহার করা হয়েছে।  

মরদেহের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।  

এসএমপির শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ চৌধুরী বলেন, তালাবদ্ধ বাসা থেকে রাফির মরদেহ উদ্ধার করা হয়। বাসায় তার মামাও ছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে, কয়েক ঘণ্টা আগে তাকে হত্যা করা হয়েছে। পরিবারের লোকজনের ভাষ্যমতে নিহতের মামাও বাসায় ছিলেন। তিনি পলাতক রয়েছেন। হত্যাকাণ্ডের তথ্য বের করতে তাকে খোঁজা হচ্ছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৮৫১ ঘণ্টা, মার্চ ০৫, ২০২৪
এনইউ/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।