ঢাকা, শুক্রবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৪ মে ২০২৪, ১৫ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

নাটোরে চেয়ারম্যান প্রার্থীকে অপহরণ কাজে ব্যবহৃত প্রাইভেটকার জব্দ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ২২, ২০২৪
নাটোরে চেয়ারম্যান প্রার্থীকে অপহরণ কাজে ব্যবহৃত প্রাইভেটকার জব্দ

নাটোর: নাটোরের সিংড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ার হোসেনকে অপহরণ ও মারধরের ঘটনায় ব্যবহৃত আরও একটি প্রাইভেটকার জব্দ করেছে পুলিশ।

রোববার (২১ এপ্রিল) সন্ধ্যায় সিংড়া উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে অপহরণ কাজে ব্যবহৃত কালো রঙের প্রাইভেটকারটি (ঢাকা মেট্রো-গ-২৯-৩১৪৪) জব্দ করা হয়।

সোমবার (২২ এপ্রিল) দুপুরে নাটোর পুলিশ সুপারের কার্যালয় থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। জব্দকৃত প্রাইভেটকারটির মালিক সিংড়া উপজেলার নিংগইন এলাকার মিজানুর রহমান।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ১৫ এপ্রিল বিকেলে জেলা নির্বাচন অফিসের ভেতর থেকে অজ্ঞাত ১৫/২০ জন একটি কালো রঙের মাইক্রোবাসে করে চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ার হোসেনকে অপহরণ করে। এ অপহরণ কাজে একটি কালো রঙের মাইক্রোবাসের পাশাপাশি একটি প্রাইভেটকারও ব্যবহার করা হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই প্রাইভেটকারটি জব্দ করা হয়।

এছাড়া গত শনিবার (২০ এপ্রিল) অপহরণ কাজে ব্যবহৃত কালো রংয়ের মাইক্রোবাসটি জব্দ করে ডিবি পুলিশ। ওই গাড়ির ভেতর থেকে ধারালো অস্ত্র ও সিংড়া উপজেলা পরিষদের নির্বাচন থেকে নিজের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করা লুৎফুল হাবীব রুবেলের মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান অর্ক এন্টারপ্রাইজের নামের কাগজপত্র, লিফলেট, পোস্টার জব্দ করা হয়।

নাটোরের পুলিশ সুপার মো. তারিকুল ইসলাম এতথ্য নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, এসব ঘটনায় ইতোমধ্যে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি ঘটনায় জড়িত পলাতক অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান চলছে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গত সোমবার (১৫ এপ্রিল) মনোনয়নপত্র দাখিলের জন্য দেলোয়ার হোসেন ব্যাংকে জামানতের টাকা জমা দেওয়ার জন্য বের হন। এ সময় তারা জরুরি প্রয়োজনে জেলা নির্বাচন কার্যালয়ের সামনে গেলে সেখান থেকে একটি কালো রঙের মাইক্রোবাসে করে কয়েকজন দুর্বৃত্ত আলাউদ্দিন মুন্সিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে দেলোয়ার হোসেন নির্বাচন অফিস থেকে নেমে এলে তাকেও একটি মাইক্রোবাসে করে তুলে নিয়ে যায়। এ সময় দুর্বৃত্তরা তাকে গাড়ির ভেতর মারধর করে। সে সময় তারা এ কাজে একটি প্রাইভেটকারও ব্যবহার করে।

পরে বিকেলে দেলোয়ার হোসেনকে তার বাড়ির সামনে (সিংড়া উপজেলার কলম ইউনিয়নের পারসাঐল গ্রাম) ফেলে দিয়ে যায়। চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ার হোসেনকে অপহরণের দুটি সিসিটিভি ফুটেজ পাওয়া গেছে। দেলোয়ার হোসেনকে অপহরণ করে যে গাড়িতে তোলা হয় সেটি তার প্রতিদ্বন্দ্বী লুৎফুল হাবীব রুবেলের। আহত দেলোয়ার হোসেনের ভাই বাদী হয়ে মামলা দায়ের করলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ২২, ২০২৪
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।