ঢাকা, সোমবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২০ মে ২০২৪, ১১ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

তীব্র তাপপ্রবাহ: শিবচরে বাড়ছে শ্বাসকষ্ট-ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮১২ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
তীব্র তাপপ্রবাহ: শিবচরে বাড়ছে শ্বাসকষ্ট-ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা

মাদারীপুর: তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে নানা রোগে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলায়। গত সাতদিনে ২২৮ রোগী গরমজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

দিন দিন গরমের তীব্রতা বাড়ায় জনজীবনে দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে। ঝাঁঝালো রোদের কারণে বাতাসে গরমভাব রয়েছে। পথঘাট তপ্ত হয়ে উঠেছে। ঘরের বাইরে বের হয়ে কাজকর্ম করা কঠিন হয়ে পড়েছে এ তাপপ্রবাহে। অতিরিক্ত গরম থাকায় সাধারণ মানুষের স্বাভাবিক কাজকর্ম ব্যাহত হচ্ছে। বাজার-ঘাট, মার্কেটে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই লোকজনের উপস্থিতি কমে আসছে। ফসলের ক্ষেতে কাজ করতে পারছেন না কৃষকরা। তাপের তীব্রতার কারণে অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছে না সাধারণ মানুষ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত কয়েকদিন ধরে তাপমাত্রা বেড়েছে। গত বৃহস্পতিবার থেকে শিবচরে তাপপ্রবাহ আরও বেড়েছে। ফলে স্বাভাবিক কাজকর্ম ব্যাহত হচ্ছে সাধারণ মানুষের। রোদের অতিরিক্ত তাপ ও গরমের কারণে ঘর থেকে বের হওয়া থেকে বিরত থাকছেন অধিকাংশ মানুষ।  

শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, ডায়রিয়া, শ্বাসকষ্ট, জ্বরসহ নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গত সাতদিনে রোগী ভর্তি হয়েছেন ২২৮ জন। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ডায়রিয়া ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ১৪ জন নারী, ১২ জন পুরুষ ও ১৬ জন শিশু ভর্তি হয়েছে। এছাড়া হাসপাতালের বহির্বিভাগে বাড়ছে রোগীর সংখ্যা।

শিবচর উপজেলার উৎরাইল এলাকার একাধিক ভ্যানচালক বলেন, সকাল ৯টার পরে তেমন একটা যাত্রী পাওয়া যায় না। কড়া রোদের কারণে রাস্তাঘাটে যাত্রী কম। রোদের তাপ বেশি থাকায় ভ্যান চালানোও দুষ্কর হয়ে পড়েছে। একদিকে গরমে কষ্ট অন্যদিকে তিন থেকে চারদিন ধরে যাত্রী কম থাকায় আয় কমে গেছে।

মিলন হোসেন নামে এক ইজিবাইকচালক বলেন, রোদের তাপ আর গরমে সারাদিনই প্রায় যাত্রী শূন্য। ভোরের দিকে বাজারে লোকজন এলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাজার-রাস্তাঘাট লোকশূন্য। রোদে খাঁ খাঁ করে রাস্তা। রাস্তার দিকে তাকানো যায় না।

স্থানীয় কৃষক ইদ্রিস বলেন, এ রোদের তাপে ক্ষেতে যাওয়া সম্ভব হয় না। ফসল পুড়ে যাচ্ছে রোদে।

মাদারীপুর আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েকদিন ধরেই জেলার তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির ঘরে। কখনও বাড়ে আবার কখনও কিছুটা কমে। তবে তাপ ও গরম অব্যাহত রয়েছে।

শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. ইব্রাহিম জানান, গরমে হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা বাড়ছে প্রতিনিয়ত। ভর্তি ছাড়াও চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফেরা রোগীর সংখ্যাও অনেক। ডায়রিয়া, জ্বর, শ্বাসকষ্টজনিত রোগে আক্রান্তের সংখ্যা বেশি।

মাদারীপুর সিভিল সার্জন ডা. মুনীর আহমদে খান জানান, তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে শিশু, বৃদ্ধসহ বিভিন্ন বয়সের রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। হাসপাতালগুলোতে সর্বোচ্চ সেবা দেওয়া হচ্ছে। এ গরমে সবাইকে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ০৮১১ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।