ঢাকা, শুক্রবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৪ মে ২০২৪, ১৫ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

'দুই ভাইকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় দোষীদের শাস্তির আওতায় আনা হবে'

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯০৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৫, ২০২৪
'দুই ভাইকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় দোষীদের শাস্তির আওতায় আনা হবে'

ফরিদপুর: মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী আব্দুর রহমান বলেছেন, ফরিদপুরের মধুখালী পঞ্চপল্লিতে নির্মাণ শ্রমিক দুই ভাইকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা দুঃখজনক ও হৃদয় বিদারক। এ ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের বেশ কয়েকজন গ্রেপ্তার হয়েছে।

বাকিদেরও গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চলছে। এই বাংলার মাটিতে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি কার্যকর করা হবে। যা দেখে আগামীতে কেউ এমন অপরাধ করার সাহস যাতে না পায়।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার নওপাড়া চোপেরঘাট গ্রামে নিহত সহোদরের বাড়িতে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করে মন্ত্রী একথা বলেন।  

মন্ত্রী আরও বলেন, তবে এ ঘটনার পেছনে অন্য কোনো চক্রান্ত থাকতে পারে। সুতরাং এই চক্রান্ত কারা, কেন করেছে তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গতকাল মঙ্গলবার মহাসড়ক অবরোধ করে পুলিশের ওপর হামলার মধ্য দিয়ে তারা আবার আরেকটা ঘটনার জন্ম দিতে চেয়েছিল। এই দেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বাংলাদেশ, কেউ ধৈর্যহারা হবেন না। প্রশাসন তদন্ত করে সব দোষীদের আইনের আওতায় আনবে।

পরে তিনি ঘটনাস্থল ডুমাইন ইউনিয়নের কৃষ্ণনগর পঞ্চপল্লি স্কুল ও মন্দির পরিদর্শন করেন।

এসময় জেলা প্রশাসক কামরুল আহসান তালুকদার, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোর্শেদ আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামীম হক, সাধারণ সম্পাদক ইশতিয়াক আরিফসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৭টার দিকে ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার ডুমাইনের পঞ্চপল্লিতে কালি মন্দিরে আগুন দেওয়ার সন্দেহে গুজব ছড়িয়ে বাঁশ, লাঠি দিয়ে পিটিয়ে ও ইট দিয়ে থেতলিয়ে আপন দুই সহোদরকে হত্যা এবং আরও পাঁচজনকে গুরুতর আহত করার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তিনটি মামলা দায়ের করা হয়। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসক মো. কামরুল আহসান তালুকদার। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ রাখতে ৪ প্লাটুন বিজিবিসহ অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ান রাখা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৯০০ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৫, ২০২৪
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।