ঢাকা, বুধবার, ৫ আষাঢ় ১৪৩১, ১৯ জুন ২০২৪, ১১ জিলহজ ১৪৪৫

জাতীয়

আদাবরে প্রতিবেশীর সঙ্গে মারামারি, ২০ দিন বয়সী শিশুর মৃত্যু

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৩১ ঘণ্টা, মে ২২, ২০২৪
আদাবরে প্রতিবেশীর সঙ্গে মারামারি, ২০ দিন বয়সী শিশুর মৃত্যু

ঢাকা: রাজধানীর আদাবর থানাধীন নবোদয় হাউজিং এলাকায় দুই প্রতিবেশীর ঝগড়া ও মারামারির সময় কোলে থাকা ২০ দিন বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (২২ মে) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে আদাবর নবোদয় হাউজিংয়ের ৬ নম্বর রোডে নবোদয় বাজারের পেছনে একটি ভ্যানের ওপর থেকে ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

পরে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

আদাবর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মাধব চৌধুরী সুরতহাল রিপোর্টে উল্লেখ করেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে শিশুটির মা মিতু বেগম শিশুটিকে কোলে নিয়ে প্রতিবেশীর সঙ্গে ঝগড়া ও এক পর্যায়ে মারামারি করেন। এ সময় প্রতিবেশীর ঘুষিতে কোলে থাকা শিশু কবির হোসেন আহত হয়। তার নাক-মুখ দিয়ে রক্ত ঝরতে থাকে। বুধবার ভোরের দিকে রক্তক্ষরণে শিশুটি মারা যায়।

তিনি জানান, খবর পেয়ে সকালে ওই বাসার সামনে থাকা ভ্যান থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

মৃত শিশুটির বাবার নাম আব্দুস সাত্তার। তাদের বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার নিকলী থানার কারপাশা গ্রামে। বর্তমানে নবোদয় বাজারের পেছনে ৬ নম্বর রোডে ভাড়া থাকেন। তিনি রিকশাচলক, তার স্ত্রী মিতু বেগম গৃহিণী। তিন মেয়ে পাঁচ ছেলের মধ্যে কবির ছিল সবার ছোট।

আব্দুস সাত্তার বলেন, গতকাল সন্ধ্যায় প্রতিবেশী হীরার ছেলের সঙ্গে আমার তিন বছর বয়সী ছেলে অলি উল্লাহর ঝগড়া হয়। হীরা ও তার বোন জামাই রুবেল আমার ছেলেকে মারধর করতে থাকে। পরে আমার ছেলে-মেয়ে ও স্ত্রী এগিয়ে গেলে তাদেরও মারধর করে। এক পর্যায়ে কোলে থাকা শিশু কবিরের নাকে মুখে ঘুষি মারে হীরা। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় ছেলেকে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাসায় নিয়ে আসি। ভোরে বাসাতেই মারা যায় আমার ছেলে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩০ ঘণ্টা, মে ২২, ২০২৪
এজেডএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।