ঢাকা, সোমবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২০ মে ২০২৪, ১১ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

বগুড়ায় ঘুষ নেওয়ার সময় টাকাসহ কর কর্মকর্তা আটক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৩৫০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১, ২০২০
বগুড়ায় ঘুষ নেওয়ার সময় টাকাসহ কর কর্মকর্তা আটক কর কর্মকর্তাকে আটক করেছে দুদক: ছবি-বাংলানিউজ

বগুড়া: অফিসে বসে ঘুষ নেওয়ার সময় বগুড়ায় অভিজিৎ কুমার দে (৩৫) নামে কর বিভাগের এক কর্মকর্তা দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) ফাঁদে ধরা পড়েছেন।

অভিজিৎ কুমার দে সহকারি কর কমিশনার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি যশোর জেলার মনিরামপুর উপজেলার সনৎ কুমার দে’র ছেলে ।

মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) দুপুরে শহরের নিশিন্দারা উপ-শহর এলাকায় কর অফিস থেকে ঘুষের ৫০ হাজার টাকাসহ তাকে হাতে-নাতে আটক করেছে দুদক।

এ ঘটনায় দুদকের সমন্বিত বগুড়া জেলা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত কর কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ১৬১ এবং দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫ এর ২ ধারায় মামলা দেওয়া হয়েছে।

দুদকের এ অভিযানে নেতৃত্বদানকারী দুদক কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম জানান, বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার বাসিন্দা ইউনুস আলী পেশায় একজন ব্যবসায়ী এবং তিনি নিয়মিত কর দেন। কয়েক বছর আগে তিনি তার মালিকানাধীন কিছু জমি বিক্রি করেন। জমি বিক্রির সেই টাকা তিনি তার ট্যাক্স ফাইলে অন্তর্ভূক্ত করার জন্য প্রায় এক বছর আগে কর বিভাগে আবেদন করেন। কিন্তু দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারি কর কমিশনার অভিজিৎ কুমার দে এজন্য ইউনুস আলীর কাছে ১ লাখ টাকা দাবি করেন। পরবর্তীতে অভিজিৎ কুমার ইউনুস আলীকে জানান যে, ৫০ হাজার টাকা না দিলে তার ফাইল আপডেট করা হবে না।

দুদকের হাতে আটক কর কর্মকর্তা: ছবি-বাংলানিউজদুদক বগুড়া জেলা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক আমিনুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, মোবাইল ফোনে কর কর্মকর্তা অভিজিৎ কুমারের ঘুষ দাবি সংক্রান্ত একটি রেকর্ডসহ ইউনুস আলী দুদক কার্যালয়ে অভিযোগ করেন। এরপর তারা এ বিষয়ে প্রাথমিকভাবে অনুসন্ধান করেন। প্রমাণ পাওয়ার পর তারা ফাঁদ পাতার সিদ্ধান্ত নেন।

তিনি বলেন, ঘুষের ৫০ হাজার টাকা চিহ্নিত করে ইউনুস আলীকে দেওয়া হয়। এরপর ইউনুস আলী তার ছেলে জাকওয়ানকে নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে শহরের নিশিন্দারা উপ-শহর এলাকায় কর অফিসে যান। আমিনুল ইসলাম বলেন, ইউনুস আলী ও তার ছেলে জাকওয়ান কর অফিসে প্রবেশের পূর্বেই দুদক কর্মকর্তারা ওঁৎ পেতে অপেক্ষা করতে থাকেন। এরপর কর কর্মকর্তা অভিজিৎ কুমার দে যখন ইউনুস আলীর ছেলে জাকওয়ানের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা নিয়ে তার ড্রয়ারে রাখেন তখনই তাকে হাতেনাতে আটক করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২২৪৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯
কেইউএ/ইউবি 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।