ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৪ মে ২০২৪, ১৫ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

ট্রাকস্ট্যান্ডের জন্য রেলের কাছে জমি চাইবে ডিএনসিসি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫২৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০২০
ট্রাকস্ট্যান্ডের জন্য রেলের কাছে জমি চাইবে ডিএনসিসি তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড পরিদর্শন করেন ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম | ছবি: জিএম মুজিবুর

ঢাকা: তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ডের সমস্যার স্থায়ী সমাধানের জন্য রেল কর্তৃপক্ষের কাছে জমি চাইবে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)। জমি পাওয়া গেলে সেখানে আন্ডারগ্রাউন্ড এবং মাটির উপরে মাল্টিলেভেল পার্কিংয়ের ব্যবস্থা করা হবে।

বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড পরিদর্শনে এসে এমনটা জানান ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম।

ট্রাকস্ট্যান্ড পরিদর্শনে এলে মেয়রকে তেজগাঁও রেলগেটের পেছনে থাকা প্রায় ২১ বিঘা জমি দেখান ট্রাক মালিক ও শ্রমিক নেতারা। তারা সেখানে শ্রমিকদের থাকার জন্য একটি বহুতল ভবন এবং পার্কিংয়ের ব্যবস্থার জন্য স্থান বৃদ্ধির অনুরোধ জানান।

পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে মেয়র আতিক জানান, এই পার্কিং নিয়ে অচলাবস্থার স্থায়ী সমাধান করতে হবে। প্রয়াত মেয়র আনিসুল হক দীর্ঘ ৪০ বছর পর এখানকার সড়ক উদ্ধার করেছিলেন। তবুও মাঝে মাঝে ট্রাক সড়কে চলে আসে। আবার আমরা এলে বা পুলিশ এলে তারা চলে যায়, আমরা চলে গেলে আবার আসে। এক ধরনের চোর-পুলিশ খেলা। কিন্তু এটা হতে দেওয়া যায় না। এর একটা স্থায়ী সমাধান দরকার। সেজন্যই নিজে দেখতে এলাম।

রেলের জমি চাওয়া প্রসঙ্গে আতিক বলেন, এই ট্রাকস্ট্যান্ডে প্রতিদিন প্রায় পাঁচ হাজার ট্রাক আপ-ডাউন করে। দুই হাজার ট্রাক এখানে থাকে। এখানে রেলের ২১ বিঘা জায়গা আছে। এটি সিটি কর্পোরেশনকে দিয়ে দেওয়ার জন্য আমি চিঠি দেব। আমরা এই জায়গাটি পেলে এখানে আন্ডারগ্রাউন্ড এবং উপরে মাল্টিলেভেল পার্কিং ব্যবস্থা করে দেব। সেখানে তারা থাকতেও পারবেন। প্রতিদিন এখানে ট্রাকের সংখ্যা বাড়ছে, যেহেতু এটা একটা ব্যবসা। কিন্তু তাদেরকে শৃঙ্খলার মধ্যে আনতে হবে। তাদের ট্রাক পার্কিং করার জায়গা দিতে হবে। সম্প্রতি দক্ষিণের মেয়র মহোদয়কে নিয়ে ঢাকার আশেপাশে যেমন বাসের স্থায়ী টার্মিনালের জন্য আমরা জায়গা পরিদর্শনে গিয়েছিলাম তেমনি ট্রাকের জন্য আজ এখানে এসেছি।

এ সময় সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং ট্রাক মালিক ও শ্রমিক নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫২৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০২০
এসএইচএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।