ঢাকা, সোমবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২০ মে ২০২৪, ১১ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

বিটিআরআই স্কুলের প্রধান শিক্ষককে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ

ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০২০
বিটিআরআই স্কুলের প্রধান শিক্ষককে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ

মৌলভীবাজার: অস্থায়ীভাবে বহিষ্কৃত শ্রীমঙ্গলের বিটিআরআই উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সায়েক আহমেদকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেওয়া হবে।

বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে অনৈতিক আচরণের সত্যতা পাওয়ার পর তদন্ত কমিটি গত ১৭ ডিসেম্বর ওই প্রধান শিক্ষককে কারণ দর্শানো নোটিশ দেয়।

নোটিশের জবাব তদন্ত কমিটি বরাবর জমা দেবার পর এবার আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ পাবেন প্রধান শিক্ষক সায়েক আহমেদ।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বিটিআরআই পরিচালক এবং বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ড. মোহাম্মদ আলী বাংলানিউজকে বলেন, বিটিআরআই উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সায়েক আহমেদ কারণ দর্শানো নোটিশের জবাব দিয়েছেন। এবার নিয়মানুযায়ী তাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেওয়া হবে। আত্মপক্ষ সমর্থনের প্রমাণপত্রসহ সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র বাংলাদেশ চা বোর্ডে আমরা পাঠাব। চা বোর্ড এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে। এখানে আমাদের সিদ্ধান্ত নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষক বাংলানিউজকে নিজেদের প্রতিক্রিয়ায় বলেন, নিজ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর সঙ্গে অনৈতিক শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করার ঘটনাটি ঐতিহ্যবাহী বিটিআরআই স্কুলের দীর্ঘদিনের গৌরব ও মর্যাদাকে মারাত্মকভাবে ক্ষুণ্ণ করেছে। এই নেক্কারজনক ঘটনাটি ধামাচাপা দেবার জন্য শিক্ষকদের একটি পক্ষ নেপথ্যে সায়েক আহমেদকে রক্ষা করে সপদে বহাল রাখাতে জোরেসোরে কাজ করে যাচ্ছেন। এটি অত্যন্ত দুঃখজনক।

মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর) দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে বাসায় ডেকে তার সঙ্গে অনৈতিক শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগ ওঠে প্রধান শিক্ষক সায়েক আহমেদের বিরুদ্ধে। অনৈতিক প্রস্তাবের অভিযোগ সংক্রান্ত ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে নিন্দার ঝড় ওঠে। অভিযোগের পর সায়েক আহমেদকে অস্থায়ীভাবে বিটিআরআই উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের পদ থেকে অস্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০২০
বিবিবি/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।