ঢাকা, সোমবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০, ২৯ মে ২০২৩, ০৯ জিলকদ ১৪৪৪

জাতীয়

পুড়ে গেছে যমুনা টিভির স্টুডিও-প্যানেল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৬, ২০২২
পুড়ে গেছে যমুনা টিভির স্টুডিও-প্যানেল

ঢাকা: রাজধানীর বাংলামোটরে রাহাত টাওয়ারের অগ্নিনিকাণ্ডে বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল যমুনা টিভির স্টুডিও, প্যানেলসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সরঞ্জাম পুড়ে গেছে। এতে আনুমানিক তিন থেকে চার কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) সকাল ১১ টা ৪ মিনিটে অগ্নিকাণ্ডের খবর পায় ফায়ার সার্ভিস। এরপর পর্যায়ক্রমে ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে ফায়ার সার্ভিসের ১১ টি ইউনিট। প্রায় দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় বেলা সাড়ে ১২ টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার পরে ভবনের ভেতর থেকে ঘুরে এসে যমুনা টিভির এক রিপোর্টার বলেন, আগুনের সূত্রপাত সম্পর্কে কিছু বলতে পারছি না। শুধু দেখলাম সিলিং থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে। প্রথমে আমরা ভবনে থাকা অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করি। সেই সঙ্গে কিছু মালামাল বের করার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়লে ধোঁয়ার কারণে আমরা সবাই নিচে নেমে আসি।

আগুনের কারণে যমুনা টিভির স্টুডিও, ভিডিও এডিটিং প্যানেল, ক্যামেরা, নিউজ রুমে লাইভের  বিভিন্ন সরঞ্জাম পুড়ে গেছে। যমুনা টিভির এই শাখা অফিসের ৬০ শতাংশ পুরে গেছে। তবে কর্মীরা নিরাপদে বের হয়ে এসেছেন।  

ওই অফিসে কর্তব্যরত যমুনা টিভির কর্মীরা জানান, সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে তারা প্রথমে সিলিংয়ে ধোঁয়া দেখতে পান। ধোঁয়া দেখার পর ভবনে থাকা অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা দিয়ে প্রথমে আগুন নেভানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় ১১টা ৩ মিনিটে ফায়ার সার্ভিসে খবর দেওয়া হয়। আগুনে ভবনটির অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের কোনো ক্ষতি না হলেও যমুনা টিভির নিউজ রুম, স্টুডিওসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম পুড়ে গেছে।

বাংলাদেশের ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের ফয়সাল আহমেদ বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এসি বা স্টুডিওর বৈদ্যুতিক তারের শর্ট সার্কিটের মাধ্যমে আগুন লাগতে পারে। তবে আমরা তদন্ত করে বিস্তারিত জানাবো।

তিনি আরো বলেন, এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে যমুনা টিভির এই শাখা অফিসটির অনেকটা পুড়ে গেছে।

রাহাত টাওয়ারের ১১ তলায় যমুনা টিভি, ৮ম তলায় বিজয় টিভি ও চার তলায় বাংলাদেশ ফার্মেসি কাউন্সিলসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক (অপারেশন) লে. কর্নেল জিল্লুর রহমান বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এসি বা অন্য বৈদ্যুতিক তারের শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়ায় নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। ১১ তলার সিলিংয়ে আগুন ও ধোঁয়া ছড়াতে থাকায় কর্মীরা বের হয়ে যান। তদন্তের পর অগ্নিকাণ্ডের কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৬, ২০২২
পিএম/এসআইএস 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa