ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ মাঘ ১৪২৯, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ০৮ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

বুড়িগঙ্গায় লঞ্চের ধাক্কায় ট্রলারডুবি, ৩ জনের রিমান্ড আবেদন 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৬, ২০২২
বুড়িগঙ্গায় লঞ্চের ধাক্কায় ট্রলারডুবি, ৩ জনের রিমান্ড আবেদন 

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার ধর্মগঞ্জ চতলার মাঠ এলাকায় বুড়িগঙ্গা নদীতে লঞ্চের ধাক্কায় ট্রলারডুবির ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।  

মামলাটি করেছেন বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদীবন্দরের নৌনিরাপত্তা বিভাগের উপপরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) বাবু লাল বৈদ্য।

 

বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) করা এই মামলায় আসামি করা হয়েছে মেসার্স ফারহান নেভিগেশনের এমভি ফারহান-৬ লঞ্চের মাস্টার কামরুল হাসান (৪০), ইনচার্জ ড্রাইভার মো. জসিম উদ্দিন ভূঁইয়া (৪০) ও সুকানি মো. জসিম মোল্লাকে (৩০)।  

ওই তিনজনের পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বক্তাবলী নৌ-ফাঁড়ির উপপরিদর্শক আব্দুল মতিন।  

এর আগে বুধবার ট্রলারটিকে ধাক্কা দেওয়া লঞ্চটি ও এর মাস্টার, ইনচার্জ ও সুকানিকে আটক করে নৌ-পুলিশ।  

এদিকে, ঘটনার প্রায় দুই দিন পেরিয়ে গেলেও বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত ট্রলারডুবিতে নিখোঁজ কাউকে এখনো উদ্ধার করা হয়নি। তবে উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রয়েছে। নিখোঁজদের সন্ধান পেতে নদীর তীরে অপেক্ষায় রয়েছেন স্বজনরা।  

নিখোঁজ ৮ জন হলেন- কিশোরগঞ্জের ইদ্রিস আলীর ছেলে আব্দুল্লাহ (২২), রেকমত আলীর ছেলে মোতালেব (৪২), চর বক্তাবলী এলাকার রাজুর ছেলে সাব্বির (১৮), মধ্য চরের সোহেলের স্ত্রী জেসমিন আক্তার (৩২), সোহেলের ছেলে তামীম খান (৮), মেয়ে তাফসিয়া (২), তাসমিম ওরফে তাসলিমা (১৫) ও আওলাদ (২৮)।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সেরর উপসহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ আল আরেফিন বলেন, আমাদের তিনটি ডুবুরি দল উদ্ধারের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। এখনো ট্রলারটির সন্ধান পাওয়া যায়নি। নিখোঁজ কাউকে উদ্ধার করাও সম্ভব হয়নি।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৬, ২০২২
জেএইচটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa