ঢাকা, বুধবার, ১৯ মাঘ ১৪২৯, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৯ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

বসুন্ধরা নুডল্‌স নিয়ে এলো ‘বিনা তারের পাঠশালা’ 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০২২
বসুন্ধরা নুডল্‌স নিয়ে এলো ‘বিনা তারের পাঠশালা’  ছবি: রাজিন চৌধুরী 

ঢাকা: ভবিষ্যৎ প্রজন্মের অগ্রগতির জন্য শুধুমাত্র পুষ্টিমান নিশ্চিত করলেই হয় না, সঙ্গে দরকার তাদের পূর্ণাঙ্গ মেধার বিকাশ। পুর্ণাঙ্গ মেধার বিকাশে শিক্ষার বিকল্প নেই।

এজন্যই পুষ্টিমান নিশ্চিত করার পাশাপাশি উপযুক্ত মেধার বিকাশের জন্য বসুন্ধরা নুডল্‌স শিক্ষার সাথে নিয়ে এলো ‘বিনা তারের পাঠশালা’।  

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) বসুন্ধরা ইন্ডাস্ট্রিয়াল হেড কোয়ার্টার-২-এর কনফারেন্স রুমে আয়োজিত এক প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয় এই ব্যতিক্রমী ক্যাম্পেইনের।  

প্রেস কনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন সি.ও.ও, ব্র্যান্ড অ্যান্ড মার্কেটিং (সেক্টর-এ) বসুন্ধরা গ্রুপের এম এম জসীম উদ্দীন, কোঅর্ডিনেটর টু ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান, ব্র্যান্ড ম্যানেজার, বসুন্ধরা ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লি. তাফসিরুল হক, ম্যানেজিং ডিরেক্টর, প্যাপিরাস ডিজি কমের রাহবার খানসহ বসুন্ধরা গ্রুপের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।  

ক্যাম্পেইনটির বিস্তারিত বর্ণনা তুলে ধরে জসীম উদ্দিন বলেন, বসুন্ধরা নুডল্‌স শিক্ষার সাথে নিয়ে এলো ‘বিনা তারের পাঠশালা’ একটি অনলাইনভিত্তিক শিক্ষামূলক প্ল্যাটফর্ম। সময়ের সাথে সাথে পরিবর্তন এসেছে প্রযুক্তির। আর প্রযুক্তির এই উন্নয়নে, সবারই সিংহভাগ সময় কেটে যায় অনলাইনে। সেই সিংহভাগ সময়টিও যেন অযথাই অপচয় না হয়, সে কারণেই বসুন্ধরা নুডল্‌স-এর এই উদ্যোগ। এখন সময় অনলাইনে কাটলেও নিশ্চিত হবে সময়ের সদ্ব্যবহার।  

তিনি আরও বলেন, ‘বিনা তারের পাঠশালা’ শীর্ষক উদ্যোগের মাধ্যমে আমরা চেয়েছি শিক্ষার এক নতুন দিগন্ত উম্মোচন করতে। সবার জন্য শিক্ষার পথকে অবারিত করতে বসুন্ধরা নুডল্‌স ব্রান্ডটি নিয়ে এলো ভিন্ন্যধর্মী এই উদ্যোগ। নুডল্‌স এর সাথে ক্ষণস্থায়ী উপহারের বদলে আমরা ভোক্তাদের দিতে যাচ্ছি চিরস্থায়ী ভবিষ্যতের অনুপ্রেরণা। ‘বিনা তারের পাঠশালা’ ওয়েবসাইটটি সবার জন্য। যেকোনো বয়সের, যেকোনো শ্রেণির মানুষ একদম বিনামূল্যে এখান থেকে শিক্ষা অর্জন করতে পারবে। ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য আমরা নুডল্‌স এর প্যাকে দিচ্ছি স্ক্র্যাস কার্ড। যেখানে রয়েছে ১০ টাকা থেকে শুরু করে ১০ হাজার হাজার টাকার মোবাইল রিচার্জ পর্যন্ত জেতার সুযোগ।

প্রেস কনফারেন্সে রাহবার খান বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপের একটি অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো, তারা শুধুমাত্র নিজেদের জন্য কাজ করে না, তারা দেশ ও মানুষের জন্য কাজ করে। বসুন্ধরা গ্রুপের যেকোনো পণ্য সেটা দেশি হোক আর বিদেশি, ক্রেতারা সাদরে তা গ্রহণ করেছে। প্রযুক্তির উৎকর্ষতা কাজে লাগিয়ে আগামী প্রজন্মের মেধার বিকাশের সহায়ক এমন উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়। প্যাপিরাস ডিজিকম এমন উদ্যোগের সঙ্গে সংযুক্ত হতে পেরে গর্বিত এবং আনন্দিত।

রাহবার খান আরও বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপ দেশ ও জনগণের সেবাকে পণ হিসেবে গ্রহণ করে কাজ করে যাচ্ছে। শুধুমাত্র ব্যবসার মাধ্যমে মুনাফা তৈরিতে এই গ্রুপ বিশ্বাসী নয়, একই সঙ্গে মানুষ ও দেশের সেবায় নিয়োজিত রয়েছে অবিরাম। বসুন্ধরা নুডল্‌স পুষ্টিগুণে শুধুমাত্র মেধার বিকাশের কথা চিন্তা করে না, বিনামূল্যে শিক্ষা প্রদান করে জাতির উন্নতির কথা চিন্তা করে। এজন্যই তারা ‘বিনা তারের পাঠশালা’ নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে শিক্ষার সঙ্গে। দেশ ও মানুষের কল্যাণে দেশের বৃহত্তম শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপ কাজ করে যাচ্ছে নিরলসভাবে। ‘বিনা তারের পাঠশালা’ ক্যাম্পেইনটি এমনই এক সেবামূলক উদ্যোগ।

উপস্থিত কর্মকর্তারা কেক কেটে অনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন ‘বিনা তারের পাঠশালা’ ক্যাম্পেইন। অনুষ্ঠানে ক্যাম্পেইনটির অডিও ভিজ্যুয়াল এবং ওয়েবসাইটটি বিশদভাবে উপস্থাপন করেন বসুন্ধরা নুডল্‌স এর ব্র্যান্ড ম্যানেজার তাফসিরুল হক।  

এখানে ক্লিক করে ওয়েবসাইটে গিয়ে শুধু রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করলেই উম্মোচিত হবে শিক্ষার এক নতুন দ্বার। এই উদ্যোগের সঙ্গে আগামী প্রজন্মের মেধার বিকাশের মাধ্যমে দেশও এগিয়ে যাবে উন্নতির এক মাত্রায়, এমনই আশাবাদ ব্যক্ত করেন অনুষ্ঠানে আসা সবাই।  

বাংলাদেশ সময়: ১৫০৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০২২
এসএমএকে/জেএইচটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa