ঢাকা, সোমবার, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৪ রজব ১৪৪৪

রাজনীতি

‘বিএনপির গণ সমাবেশ বানচালের ষড়যন্ত্র’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২২
‘বিএনপির গণ সমাবেশ বানচালের ষড়যন্ত্র’ প্রেস ব্রিফিংয়ে বিএনপি নেতারা। ছবি: বাংলানিউজ

খুলনা: খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলা সদরে বিএনপির ১২ জানুয়ারির গণ সমাবেশ কর্মসূচি বানচালে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির নেতারা।

অন্তত এক সপ্তাহ আগে থেকে প্রস্ততি নেওয়া এ কর্মসূচি বাধাগ্রস্ত করতে পুলিশের ইন্ধনে ছাত্রলীগ-যুবলীগ ওই একই দিনে একই স্থানে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালনের জন্য দরখাস্ত করেছে।



সোমবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে মহা নগরীর কে ডি ঘোষ রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ের এ অভিযোগ করেন বিএনপি নেতারা।

এসময় বিএনপি নেতারা বলেন, ডুমুরিয়া থানার ওসি বিএনপিকে কর্মসূচি পালন করতে দেওয়া হবে না বলে সাফ জানিয়ে বলেছেন, রাত থেকেই টের পাবেন এখানে কি ঘটে। এরপর রোববার (৯ জানুয়ারি) দিবাগত রাতভর গোটা থানাব্যাপী বিএনপির নেতাকর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে পুলিশের চিরুনি অভিযান চলেছে।

এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বিএনপি নেতারা বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবিতে ১২ জানুয়ারি গণ সমাবেশ একটি মানবিক কর্মসূচি। খুলনা জেলা ও মহানগর বিএনপি এই কর্মসূচি সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণভাবে পালন করতে চায়।  

১২ জানুয়ারির গণ সমাবেশের সার্বিক প্রস্ততি এবং সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে সাংবাদিকদের অবহিত করতে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বিএনপি নেতারা এসব কথা বলেন।

সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য শেখ মুজিবর রহমান, মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন, জেলা সদস্য সচিব মনিরুল হাসান বাপ্পী, মহানগর সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক তরিকুল ইসলাম জহির ও জেলা সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক আবু হোসেন বাবু।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কাজী মো. রাশেদ, খান জুলফিকার আলী জুলু, মোস্তফা উল বারী লাভলু, সাইফুর রহমান মিন্টু, কামরুজ্জামান টুকু, আশরাফুল আলম নান্নু, আজিজুল হাসান দুলু, মুর্শিদ কামাল, এহতেশামুল হক শাওন, শেখ সাদী, শের আলম সান্টু, রোবায়েত হোসেন বাবু, সাজ্জাদ আহসান পরাগ, ইলিয়াস মল্লিক, তৈয়েবুর রহমান, মুজিবর রহমান, মো. মাসুদ পারভেজ বাবু, মোল্লা মোশারফ হোসেন মফিজ, চৌধুরী শফিকুল ইসলাম হোসেন, একরামুল হক হেলাল, শামীম কবির, চৌধুরী হাসানুর রশিদ মিরাজ, জাফরী নেওয়াজ চন্দন, আবু সাঈদ হাওলাদার আব্বাস, শেখ ইমাম হোসেন, কাজী মিজানুর রহমান, নাজমুস সাকির পিন্টু, শাহনাজ ইসলাম, কাজী মাহমুদ আলী, ইবাদুল হক রুবায়েদ, সরোয়ার হোসেন, শামসুল বারিক পান্না, মোল্লা কবির হোসেন, তারভীরুল আযম রুম্মান, শেখ জামালউদ্দিন, বদরুল আনাম খান, শাহাবুদ্দিন মন্টু, গাজী আফসারউদ্দিন মাস্টার, কাজী শাহনেওয়াজ নীরু, এইচ এম আসলাম, মোল্লা ফরিদ আহমেদ, মতলেবুর রহমান মিতুল, সিরাজুল ইসলাম লিটন, বেগ তানভিরুল আযম, হাসিনুল ইসলাম নিক, আলী আক্কাস, তরিকুল ইসলাম তারেক, ইঞ্জিনিয়ার নুরুল ইসলাম বাচ্চু, সজিব তালুকদার, আব্দুল মান্নান মিস্ত্রি, ইসতিয়াক আহমেদ ইস্তি, মনিরুজ্জামান লেলিন, গোলাম মোস্তফা তুহিন, শেখ হেমায়েত হোসেন, সেতারা সুলতানা, শাহনাজ সরোয়ার প্রমুখ।

প্রেস ব্রিফিং শেষে জেলা ও মহানগর নেতারা গণ সমাবেশ কর্মসূচি সফল করতে মহানগরী এলাকায় লিফলেট বিতরণ করেন। থানার মোড় থেকে শুরু হয়ে পিকচার প্যালেস, বড় বাজার, হেলাতলা, কে ডি ঘোষ রোড, নগর ভবন, কেসিসি মার্কেট, আদালত এলাকায় লিফলেট বিতরণ করেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২২
এমআরএম/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa