ঢাকা, বুধবার, ৫ আষাঢ় ১৪৩১, ১৯ জুন ২০২৪, ১১ জিলহজ ১৪৪৫

ভারত

ভারতে ৫ম ধাপের ভোট শুরু, বঙ্গে নারী ভোটার বেশি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০০৮ ঘণ্টা, মে ২০, ২০২৪
ভারতে ৫ম ধাপের ভোট শুরু, বঙ্গে নারী ভোটার বেশি

কলকাতা: ভারতে শুরু হয়ে গেল লোকসভা নির্বাচনের পঞ্চম ধাপের ভোট।

সোমবার (২০ মে) এই পর্বে পশ্চিমবঙ্গসহ ছয় রাজ্য ও দুই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল মিলিয়ে ৪৯ আসনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের হুগলি, আরামবাগ, শ্রীরামপুর, হাওড়া, উলুবেড়িয়া, বনগাঁ ও ব্যারাকপুর- এই ৭ আসনে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে সাতটা থেকে, চলবে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টা পর্যন্ত।

পশ্চিমবঙ্গের এই ৭টি লোকসভা আসনে মোট ১৩ হাজার ৪৮১টি বুথে চলছে ভোট। তার মধ্যে ৭ হাজার ৭১১টি বুথকে স্পর্শকাতর হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। ওই সাত লোকসভা আসনে নারী পরিচালিত বুথের সংখ্যা ১ হাজার ৪৬০টি।

গত নির্বাচনের মতো ভোট হিংসার যাতে পুনরাবৃত্তি না হয়, সে কারণে এই ধাপের ৭ আসনেও নিরাপত্তা নিয়ে কোনো ঝুঁকি নিতে নারাজ নির্বাচন কমিশন। যার জেরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে আরও বাড়ানো হয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সংখ্যা। এই ৭ কেন্দ্রে সবমিলিয়ে মোতায়েন করা হয়েছে ৭৬২ কোম্পানি আধা সামরিক সশস্ত্র সেনাবাহিনী। যার মধ্যে ভোটকেন্দ্রের পাহারায় রয়েছেন ৬১৩ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। বাকি কুইক রেসপন্স টিম হিসেবে রাখা আছে। কোথাও কোনো অশান্তি হলেই মাঠে নামবে বাকি বাহিনী। উল্লেখ্য এক কোম্পানি সমান ৮০-১০০ জন।

বুথের বাইরে রাখা হয়েছে আরও অতিরিক্ত ২৫ হাজার ৫৯০ জন সশস্ত্র রাজ্য পুলিশ। রাজ্য পুলিশের ভোট কেন্দ্রে ঢোকার অনুমতি নেই। তারা বিভিন্ন কেন্দ্রের বাইরে থেকে আইনশৃঙ্খলা সামাল দেবে। বাহিনী মোতায়েনের পাশাপাশি পঞ্চম ধাপেও প্রতিটি বুথে রয়েছে ওয়েভ কাস্টিং ব্যবস্থা। অর্থাৎ নির্বাচন কমিশন কর্তারা, অফিসে বসেই বুথের পরিস্থিতির ওপর লক্ষ্য রাখতে পারবে।

রাজ্যের দক্ষিণবঙ্গ তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি। এই ৭ আসনের মূল রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল, বিজেপি। কোথাও জোট বেঁধেছে সিপিএম ও কংগ্রেস। এছাড়া রয়েছে বহু স্বতন্ত্র প্রার্থী। সব মিলিয়ে বাংলার এই ৭ আসনে মোট ৮৮ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ করছেন এক কোটি ২৫ লাখ ২৩ হাজার ৭০২ জন ভোটর। এরমধ্যে ৬৩ লাখ ৫১ হাজার ৩২০ জন পুরুষ ভোটার, ৬১ লাখ ৭২ হাজার ৩৪ জন নারী ভোটার এবং তৃতীয় লিঙ্গের ৩৪৮ জন ভোটার রয়েছেন।

এই ধাপের কয়েকজন তারকা ও হেভিওয়েট প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হচ্ছে। হুগলি আসনে অভিনেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায় (বিজেপি), রচনা বন্দ্যোপাধ্যায় (তৃণমূল কংগ্রেস) ও মনোদীপ ঘোষ (সিপিএম)। শ্রীরামপুর আসনে তৃণমূলের হেভিওয়েট প্রার্থী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, দীপ্সিতা ধর (সিপিএম প্রার্থী) ও কবীরশঙ্কর বসু (বিজেপি প্রার্থী)। আরামবাগ আসনে মিতালী বাগ (তৃণমূল প্রার্থী), বিপ্লব কুমার মৈত্র (সিপিএম) ও অরূপ কান্তি দিগর (বিজেপি)। হাওড়া আসনে সাবেক ভারতীয় ফুটবলার প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় (তৃণমূল কংগ্রেস), রথীন চক্রবর্তী (বিজেপি) ও সব্যসাচী চট্টোপাধ্যায় (সিপিএম)। উলুবেড়িয়া আসনে সাজদা আহমেদ (তৃণমূল কংগ্রেস), আজহার মল্লিক (কংগ্রেস), অরূণউদয় পালচৌধুরী (বিজেপি)। বনগাঁ আসনে প্রদীপ কুমার বিশ্বাস (কংগ্রেস), বিশ্বজিৎ দাস (কংগ্রেস) ও কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী শান্তনু ঠাকুর (বিজেপি) এবং ব্যারাকপুর আসনে অর্জুন সিং (বিজেপি), পার্থ ভৌমিক (তৃণমূল কংগ্রেস) ও অভিনেতা দেবদূত ঘোষ (সিপিএম)।

পশ্চিমবঙ্গের ৭ আসনের পাশাপাশি ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে বিহারের ৭ আসন, ঝাড়খণ্ডের ৩, মহারাষ্ট্রে ১৩, ওড়িশায় ৫, উত্তরপ্রদেশে ১৪ এবং জম্মু-কাশ্মীর এবং লাদাখে একটি করে আসনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সব মিলিয়ে এই পর্বে দেশটির ৬৯৫ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হচ্ছে।

এই ধাপের নির্বাচনে নজর থাকবে বেশ কয়েকটি আসনে। এরমধ্যে উত্তরপ্রদেশের অমেঠি আসনে মূল প্রতিদ্বন্দ্বী স্মৃতি ইরানি (বিজেপি) ও কিশোরী লাল শর্মা (কংগ্রেস), ওই রাজ্যের রায়বরেলি আসনের দিকেও নজর থাকবে সবার। ওই কেন্দ্রে কংগ্রেস প্রার্থী রাহুল গান্ধী। লখনৌ আসনে বিজেপি প্রার্থী প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, বিহারের হাজিপুর আসনে চিরাগ পাসওয়ান (লোক জনশক্তি পার্টি- রামবিলাস), মুম্বাই উত্তর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গয়াল (বিজেপি), বারামুল্লা আসনে ওমর আবদুল্লা (জেকে ন্যাশনাল কনফারেন্স) সহ প্রমুখ।

এরআগে ৫৪৩ আসনের মধ্যে চার ধাপের ভোটে মোট ৩৭৯টি আসনের ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। শেষ ধাপ অবদি বিক্ষিপ্ত দু-একটি ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবেই নির্বাচন হয়েছে। সাত দফার লোকসভা নির্বাচনের ষষ্ঠ ধাপ ভোট হবে আগামী ২৫ মে। সপ্তম অর্থাৎ শেষ ধাপের ভোট হবে ১ জুন। একযোগে ফলাফল প্রকাশ হবে আগামী ৪ জুন।

বাংলাদেশ সময়: ১০০৬ ঘণ্টা, মে ২০, ২০২৪
ভিএস/এসআইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।