ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৩১ মে ২০২৪, ২২ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

দরজা ভাঙতেই মিলল গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬১৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৫, ২০২৩
দরজা ভাঙতেই মিলল গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ

ঢাকা: রাজধানীর শনিরআখড়ায় একটি বাসায় নাজমীন আক্তার (১৮) নামে এক গৃহবধূকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে তার মৃত্যু হয়। শ্বশুরবাড়ির লোকজনের দাবি, তিনি আত্মহত্যা করেছেন।

বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) দুপুর আড়াইটার দিকে ওই গৃহবধূকে মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের ননদ সিমা আক্তার জানান, গত পাঁচ মাস আগে ছোট ভাই নাঈম আহমেদের সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় নাজমীন আক্তারের। এরপর থেকে শনিরআখড়া গোবিন্দপুর হাজি মসজিদ রোডের একটি বাসার ৬ষ্ঠ তলায় ভাড়া থাকতেন তারা। নাঈম পল্টনে কাপড়ের ব্যবসা করেন। ঘটনার সময় সেখানেই ছিলেন তিনি।

সিমা আক্তার বলেন, ওই বাসার নিচে টেইলার্সের দোকান আছে আমার। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে নাজমীনকে ডাকতে ৬ষ্ঠ তলায় যাই। ভেতর থেকে দরজা বন্ধ থাকায় অনেকক্ষণ ডাকাডাকি করি। পরে প্রতিবেশীদের মাধ্যমে দরজা ভেঙে দেখা যায়, নাজমীন ফ্যানের সঙ্গে বাঁধা ওড়নায় ফাঁস দিয়ে ঝুলছে। তাকে সেখান থেকে নামিয়ে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় জানিয়ে সিমা আক্তার আরও বলেন, তার বাবার নাম নবী হোসেন। তার মা-বাবা গ্রামের বাড়িতেই থাকেন। সকালে মোবাইলে তার মায়ের সঙ্গে ঝগড়া হয় নাজমীনের। পরে নাঈম তাকে বাসায় রেখে কাজে চলে যায়। মায়ের সঙ্গে ঝগড়া করে নাজমীন গলায় ফাঁস দিছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া জানান, যাত্রাবাড়ি এলাকা থেকে ওই গৃহবধূকে মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত স্থানীয় থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৫, ২০২৩
এজেডএস/এনএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।