ঢাকা, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২২ মে ২০২৪, ১৩ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

৯৯৯ এ ভাইয়ের ফোন কল: পাচারকারীদের হাত থেকে তরুণী উদ্ধার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬১৮ ঘণ্টা, মে ৩০, ২০২৩
৯৯৯ এ ভাইয়ের ফোন কল: পাচারকারীদের হাত থেকে তরুণী উদ্ধার

ঢাকা: জাতীয় জরুরি সেবা-৯৯৯ এ ছোট ভাইয়ের ফোন কলে প্রতারণার মাধ্যমে দুবাই যাত্রাকালে বিমানবন্দর থেকে এক তরুণীকে উদ্ধারসহ দুই মানবপাচারকারীকে গ্রেপ্তার করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)।

মঙ্গলবার (৩০ মে) দুপুরে জাতীয় জরুরি সেবা-৯৯৯ এর মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স অফিসার পরিদর্শক মো. আনোয়ার সাত্তার বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সোমবার (২৯ মে) সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় হযরত শাহাজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ভুক্তভোগী তরুণীকে উদ্ধারসহ দুই পাচারকারী মো. আবদুল খালেক (৪৩) ও মো. ফয়েজুল্লাহ সবুজকে (৫৩) গ্রেপ্তার করা হয়েছে।  

তিনি আরও জানান, কলারের ২৪ বছর বয়সী বড় বোন এক পরিচিত লোকের মাধ্যমে পার্লারে কাজ করার জন্য দুবাই যাচ্ছিলেন। তারা ঢাকার খিলক্ষেত মধ্যপাড়া এলাকায় বসবাস করেন। কিন্তু ভিসার কপি দেখে সন্দেহ হওয়ায় তারা ঢাকার ইউএই দূতাবাসে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন ভিসাটি ভুয়া। ততক্ষণে প্রতারক চক্রের সঙ্গে তার বোন রওয়ানা দিয়ে দিয়েছেন এবং তার কাছে কোনো মোবাইল ফোনও ছিল না। কিছুক্ষণের মধ্যে প্রতারক চক্র তার বোনকে নিয়ে ঢাকার হযরত শাহাজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসার কথা ছিল। কারণ, ওইদিন রাত ৯টার ফ্লাইটে তার বোনের দুবাই যাওয়ার কথা ছিল। এমন তথ্য জানিয়ে সোমবার (২৯ মে) সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় বিমানবন্দর থেকে একজন কলার যিনি উচ্চ মাধ্যমিকের একজন ছাত্র ‘জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯’ নম্বরে ফোন কল করে তার বোনকে উদ্ধারের ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য অনুরোধ জানায়। ৯৯৯ কলটেকার কনস্টেবল মিজানুর রহমান কলটি রিসিভ করেছিলেন। কনস্টেবল মিজানুর তাৎক্ষণিকভাবে বিমানবন্দর থানা ও ইমিগ্রেশন পুলিশকে বিষয়টি জানিয়ে উদ্ধারের ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য জানান। ৯৯৯ ডিসপাচার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আসাদুজ্জামান সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ এবং কলারের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করে পুলিশি তৎপরতার খোঁজ-খবর নিতে থাকেন।

আনোয়ার সাত্তার জানান, পরে ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহনাজ বেগম ৯৯৯ কে জানান, তারা ওই তরুণীর যাত্রা স্থগিত করে তাকে ভাই ও স্বামীর কাছে বুঝিয়ে দিয়েছেন। ইতোমধ্যে এয়ারপোর্ট আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) প্রতারকচক্রের দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করে বিমানবন্দর থানায় হস্তান্তর করেছে।

এ বিষয়ে বিমানবন্দর থানায় একটি মামলা (নম্বর ৩১) দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান আনোয়ার সাত্তার।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৮ ঘণ্টা, মে ৩০, ২০২৩
এসজেএ/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।