ঢাকা, রবিবার, ১৫ মাঘ ১৪২৯, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৬ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

শিশুদেরও যক্ষ্মা হয়, পুতুল নাটকে আইসিডিডিআরবির সচেতনতা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০১০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৭, ২০২২
শিশুদেরও যক্ষ্মা হয়, পুতুল নাটকে আইসিডিডিআরবির সচেতনতা পুতুল নাটকে আইসিডিডিআরবির সচেতনতা কার্যক্রম

রাজশাহী: বিল্টুর গানের গলা খুব ভাল। গ্রামের মানুষ ১০ বছরের এই শিশুটির প্রশংসায় পঞ্চমুখ।

কিন্তু কাশির কারণে কিছুদিন থেকে বিল্টু গান ধরতে পারছে না। আর তার কাশিও থামছে না! পরে গ্রামের মানুষের পরামর্শে বিল্টু তার কফ পরীক্ষা করালো। ধরা পড়লো যক্ষ্মা। তবে চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে বিল্টু আবার গান শুরু করলো। আর বললো- ‘যক্ষ্মা হলে নেইকো ভয়, সবাই মিলে করব জয়। ’

বিল্টু আসলে একটা পুতুলের নাম। তবে বিল্টু চরিত্রে এমন পুতুল নাটকের মধ্য দিয়ে রাজশাহীতে যক্ষ্মার ব্যাপারে শিশুদের সচেতন করছে বেসরকারি সংস্থা ‘জলপুতুল’। স্বাস্থ্য অধিদফতরের ‘জাতীয় যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচি’র আওতায় পাইলট প্রকল্প হিসেবে বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) থেকে রাজশাহীতে এ কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

এতে অর্থায়ন করছে যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা (ইউএসএআইডি)। পরিচালনা করছে আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ (আইসিডিডিআরবি)।  

প্রথম দিন রাজশাহী মহানগরীর গোলজারবাগ স্কুল মাঠ, বুলনপুর বটতলা এবং পুলিশ লাইনস সংলগ্ন শ্রীরামপুর টি-বাঁধে এই নাটক প্রদর্শন করা হয়। ১২ দিনে মোট ৩০টি স্থানে এই পুতুল নাটক প্রদর্শন করা হবে।

পুতুল নাটকের পাশাপাশি এই অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী গম্ভীরা গানও অনুষ্ঠিত হয়। গানের সুর আর ছন্দে জানানো হয়- শিশুরাও যক্ষ্মায় আক্রান্ত হয়। কিন্তু বিষয়টি অনেকেরই জানা নেই। তাই শিশুরা যক্ষ্মায় ভুগলেও বিষয়টি এখনো ভীষণভাবে উপেক্ষিত।

এজন্য শিশুদের মধ্যে এই রোগের লক্ষণ ও উপসর্গ সম্পর্কে অভিভাবকসহ সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানোর কোনো বিকল্প নেই। শিশুদের যক্ষ্মা পরীক্ষার বিষয়ে অভিভাবকদের উদ্বুদ্ধকরণ ও যক্ষ্মা রোগীকে চিকিৎসার আওতায় নেওয়ার প্রয়োজনীয়তার বিষয়গুলোতে আলোকপাত করা জরুরি।

এ লক্ষ্যে ৫ জানুয়ারি জাতীয় যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির অধীনে আইসিডিডিআরবি পরিচালিত ইউএসএআইডি'স অ্যালায়েন্স ফর কমব্যাটিং টিবি ইন বাংলাদেশ (এসিটিবি) কার্যক্রম রাজশাহীতে পুতুল নাটক ও ঐতিহ্যবাহী গম্ভীরা গানের মাধ্যমে শিশুদের যক্ষ্মা বিষয়ক জনসচেতনতামূলক প্রচারণা শুরু করেছে।

টি-বাঁধে পুতুল নাটক প্রদর্শনের সময় দেখা যায়, নারী-পুরুষ ও শিশুরা অনেক উৎসাহ নিয়ে তা উপভোগ করছে। নাটকের সংলাপ করা হয়েছে রাজশাহী অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী গম্ভীরা দিয়ে। ঢাকা থেকে আসা ১৫ জন এবং রাজশাহীর ১০ জনের একটি টিম এই সচেতনতামূলক কার্যক্রম চলাচ্ছেন।

অনুষ্ঠানের প্রথমপর্বে শিশুদের নিয়ে থাকছে ২০ মিনিটের একটি কর্মশালা। তারপরই অনুষ্ঠিত হচ্ছে ২৫ মিনিটের পুতুল নাটক। এখানে থাকছে কফ পরীক্ষা এবং চিকিৎসা সেবা নেওয়ারও সুযোগ। শিশুদের যক্ষ্মা এবং বয়োঃসন্ধিকালীন বিভন্ন রোগ-বালাই থেকে তাদের মুক্ত রাখাই এ কার্যক্রমের মূল উদ্দেশ্য।

রাজশাহী টি-বাঁধে সচেতনতামূলক এ নাটক প্রদর্শনের সময় প্রকল্পের পরিচালক সাইফুল ইসলাম, প্রকল্প ব্যবস্থাপক আসিফ চৌধুরী, প্রকল্প সমন্বয়ক শাহীন সাইদুরসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১০০৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৭, ২০২২
এসএস/এমআরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa